একলাফে বিরাট টাকা দাম কমলো সোনার, স্বস্তির হাসি সাধারণ মানুষের মুখে

সোনা প্রেমীদের জন্য সুখবর। শুক্রবার ফের কমলো সোনার দর। চলতি বছর করোনা আবহে সোনার দরে দেখা গিয়েছে আকাশ-পাতাল পরিবর্তন। আর সেই পরিবর্তন উস্কে দিয়ে ফের নিম্নমুখী সোনার দর কিন্তু এবার ঊর্ধ্বমুখী রুপোর দাম।

করোনা অবহে লকডাউনের জেরে প্রচন্ড পরিমানে বেড়ে গিয়েছিল সোনার দাম। সোনার অতিরিক্ত দামে রীতিমতো আতঙ্কে ভুগছিল সোনা প্রেমীরা। কিভাবে কিনবে সোনা সেই চিন্তায় রাতের ঘুম ওড়ার জোগাড় হয়েছিল ক্রেতাদের। তবে, সোনা প্রেমীদের মুখে হাঁসি ফোটাতে গত কয়েকদিন ধরেই কমেছে সোনার দর। সেই রীতি মেনে শুক্রবারও অনেকটাই কম সোনার দাম।

অন্যদিকে সোনার দাম বাড়ার প্রসঙ্গে কোটাক সিকিওরিটিস সংস্থা জানায়,এসপিডিআর গোল্ড হোল্ডিংস-এ মজুত সোনার পরিমাণ ২.৯২ টন থেকে বেড়ে ১২৫২.৯৬ টনে পৌঁছেছে, যা গত ২৬ অগস্টের পরে প্রথম বার ঘটেছে। বিনিয়োগের স্বার্থে সোনার কেনাকাটা কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। এ ছাড়া, আমেরিকা-চিন কূটনৈতিক সম্পর্কের অবনতিতেও দাম বেড়েছে সোনার।

আসুন দেখে নেওয়া যাক ঠিক কতটা কমলো সোনার দাম। গত অগস্ট মাসে রেকর্ড গড়ে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম দাঁড়ায় ৫৬,২০০ টাকা । তবে এদিন এমসিএক্স সূচকে ০.৯% পতনের জেরে ভারতীয় বাজারে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম দাঁড়াল ৫১,৩০৬ টাকা। স্পট গোল্ড সূচকে ০.৩% পতনের ফলে প্রতি আউন্স সোনার দাম দাঁড়িয়েছে ১,৯৪৭.৪১ ডলার। তবে,সূচকে ০.৩% দর পড়েছে রুপোরও, যার জেরে প্রতি আউন্সের দাম যাচ্ছে ২৬.৮৪ ডলার। গত অগস্ট মাসে রুপোর দর প্রতি কেজিতে দাঁড়ায় ৭৯,৭২৩ টাকা। অন্যদিকে এদিন এমসিএক্স সূচকে ১.৫% উত্থানের কারণে রুপোর দাম প্রতি কেজিতে বেড়ে দাঁড়াল ৬৭,৯৭০ টাকা।