উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শেষে হওয়ার একমাসের মধ্যে ফলপ্রকাশ হবে: শিক্ষামন্ত্রী

করোনার-পরিস্থিতিতে বিদ্যালয়ের পরিচিত চিত্রটি আর দেখা যাবে না। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি বলেছিলেন যে স্কুলটি আবারও চালু হলে, সমস্ত ক্লাসের শিক্ষার্থীরা একই সাথে স্কুলে আসবে না। একে একে ক্লাসের শিক্ষার্থীরা একের পর এক আসবে। তিনি উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা শেষ হওয়ার এক মাসের মধ্যে ফলাফল প্রকাশের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। মাধ্যমিক ফলাফলও যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রকাশিত হবে। রাজ্যের সমস্ত স্কুল বর্তমানে ৩০ শে জুন অবধি বন্ধ রয়েছে। তারপরে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে বিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টা নিউজ চ্যানেলে এক অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, “আপাতত নবম ও একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়াশোনাকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। নিম্নবিত্ত শিক্ষার্থীদের একটি নির্দিষ্ট পরিকল্পনা করে স্কুলে নিয়ে আসার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে, ”তিনি বলেছিলেন। বাকি তিন পরীক্ষা ৬ জুলাই শেষ হবে। এক মাসের মধ্যে ফলাফল প্রকাশের চেষ্টা করা হবে। এ প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, “মাধ্যমিকের ফলাফল প্রকাশের পাশাপাশি এখন প্রধান লক্ষ্য উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া এবং এক মাসের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা।”

ইউজিসির পরামর্শ অনুযায়ী সেপ্টেম্বর থেকে স্নাতক শ্রেণির প্রথম বর্ষ শুরু করার পরিকল্পনা করেছে রাজ্য। ফলস্বরূপ, উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল আগস্টে প্রকাশিত হলে এক মাসের জন্য ভর্তির সুযোগ পাওয়া যাবে। শিক্ষামন্ত্রী বিদ্যালয় খোলার পরে স্বাস্থ্যবিধি নিয়মে কঠোরভাবে মেনে চলাও জোর দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘বিদ্যালয়ের জীবাণুমুক্ত করার পাশাপাশি বিদ্যালয়ের ভিতরে জীবাণুনাশক বসানো হবে। শিক্ষার্থীদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক।