নতুন রেকর্ড যোগী আদিত্যনাথের! ১ কোটি মানুষকে কাজ দিতে চলেছে যোগী সরকার

উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ প্রবাসী শ্রমিকদের স্বার্থে আরও একটি বড় পদক্ষেপ নিতে চলেছেন। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ 26 শে জুন এক কোটি লোককে চাকরি দেবেন। উত্তরপ্রদেশ সরকারের কার্যক্রম প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতেও থাকবে। ভার্চুয়াল সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। কার্যক্রমগুলিতে কেবল পরিযায়ী শ্রমিকদেরই চাকরি দেওয়া হবে না, MSME এর জন্য ঋণও দেওয়া হবে। যোগী আদিত্যনাথের এই কার্যক্রমের ফলে গোটা দেশে এত সংখ্যক মানুষকে একসাথে কাজ দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথম রাজ্য হিসেবে উঠে আসবে উত্তর প্রদেশ।

রাজ্যে বিপুল সংখ্যক পরিযায়ী কর্মী ফিরে এসেছেন। করোনার সঙ্কটে রাজ্যে ফিরে আসা ৩৬ লক্ষ পরিযায়ী কর্মীদের দক্ষতা ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে সরকার সম্পূর্ণ তথ্য সংকলন করেছে। এখনও অবধি যোগী সরকার রাজ্যের বিপুল সংখ্যক লোককে চাকরি দিয়েছে। এবং আগামী 27 জুন এই সংখ্যা এক কোটিরও বেশি হবে। যোগী সরকার শ্রমিক ও দিন শ্রমিক এমএসএমই, এক্সপ্রেসওয়ে হাইওয়েগুলি ইউপিডিএ এবং মনরেগা জাতীয় খাতে চাকরি দেবে। উত্তরপ্রদেশের ৩১ টি জেলা এই প্রচারে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রত্যাবাসন ও রাজ্যাভিষদের সঙ্কটের মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ রাজ্য কর্মকর্তাদের জীবিকা নির্বাহ এবং তাদের পুনর্বাসনের জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। তার পর থেকে অনেক সংস্থা সরকারী ডেটা ব্যাংক থেকে প্রশিক্ষিত শ্রমিক নিয়োগের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সরকার থেকে সম্প্রতি তিন লাখেরও বেশি শ্রমিককে নোইডা গার্মেন্ট সেক্টরে পাঠানো হয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী সরকার এমএসএমই খাতে প্রশিক্ষিত কর্মীদের একটি তালিকা প্রেরণ করবে।

মোদী সরকার পিএম কেয়ার্স ফান্ড থেকে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে 52 কোটি টাকা আর্থিক সহায়তা দিয়েছে। এই অর্থ পরিযায়ী শ্রমিকদের কাজ ও পুনর্বাসনের জন্য ব্যয় করা হবে। রাজ্য সরকারের কাছে অ্যাকাউন্টের তথ্য চেয়ে কেন্দ্রীয় সরকার পিএমকেয়ার ফান্ড থেকে এক হাজার কোটি টাকা রাজ্যগুলিতে প্রেরণ করেছিল। এই অর্থ নেওয়ার জন্য রাজ্য বিপর্যয় পরিচালন কর্তৃপক্ষ পৃথক অ্যাকাউন্ট খোলে। এবার যোগী সরকার ৫১ লক্ষেরও বেশি শ্রমিকের বিকাশের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের প্রধানমন্ত্রী কেয়ার ফান্ড থেকে প্রাপ্ত ৫২ কোটি টাকা ব্যবহার করবে।