অফবিট

ল্যান্ডমাইন উদ্ধার করে বহু মানুষের প্রাণ বাঁচিয়েছে এই ইঁদুর, সাহসিকতার জন্য পেল সোনার মেডেল

ছোটবেলা থেকে অনেক সুপারহিরোর কথা শুনে বা টিভিতে অনেক সুপারহিরোর কাহিনী দেখে আমরা বড় হয়েছি। যেখানে আমরা দেখেছি সুপারহিরোরা কিভাবে লাখো মানুষের জীবন বাঁচাচ্ছে। কিন্তু সেইসব শুধুমাত্র কাল্পনিক জগতে। আসল জীবনে এরকম সুপারহিরো আমরা খুবই কম দেখতে পাই।

সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া একটি খবর বিপুল মানুষের মন জয় করেছে। খবরটি হলো আফ্রিকান এক সুপারহিরো নাম “মাগওয়া” হাজারো মানুষের জীবন বাঁচিয়ে চলেছে প্রতিনিয়ত। এবং শুধু তাই নয় এই কাজের জন্য সে স্বর্ণ পদক পেয়েছে। কিন্তু বিষয়টা সেখানেই যখন জানা যায় মাগওয়া কোনো মানুষ নয়, মাগওয়া হচ্ছে একটি আফ্রিকান ইঁদুর।

সত্যিই কি অবাক করা কান্ড তাই না! একটি সামান্য ইঁদুর কিভাবে হাজারো মানুষের জীবন বাঁচাতে পারে আসুন দেখে নেওয়া যাক সেই খবর। বিভিন্ন দেশ যুদ্ধকালীন বিস্ফোরক উদ্ধারের বা বিস্ফোরক সন্ধানের জন্য বিভিন্ন প্রাণী কে তাদের যুদ্ধক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ দিয়ে ব্যবহার করেন। তেমনই আফ্রিকান সেনারা তাদের যুদ্ধক্ষেত্রের ল্যান্ডমাইন খুঁজে বের করার জন্য প্রশিক্ষণ দেয় ইঁদুরদের। কারণ ইঁদুর হচ্ছে এমন একটি প্রাণী যে মাটির অনেক নিচে গর্ত খুঁড়ে খুব কম সময়ের মধ্যেই চলে যেতে পারে। যেখানে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে মাটির ওপর থেকে ল্যান্ডমাইন খোঁজাটা অনেকটা সময় বহুল হয়ে পড়ে সেখানে একটি ইঁদুর খুব কম সময়ের মধ্যেই সেটি গর্ত খুঁড়ে অনেক গভীরে থাকা ল্যান্ডমাইনকে উদ্ধার করে দিতে পারে।

এই কাজে মাগওয়ার কোন তুলনা হয় না। তার সুনিপুণ দক্ষতার সাহায্যে কাজ দেখে অবাক আফ্রিকান সেনাদল। তাদের কথা অনুযায়ী মাগওয়া আজ পর্যন্ত ১ লক্ষ ৪০ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে থাকা ল্যান্ডমাইন এর সন্ধান দিয়েছেন সেনাদের। এবং সেটি অত্যন্ত তৎপরতার সাথে এবং নিখুঁতভাবে অত্যন্ত কম সময়ের মধ্যে। যার ফলে হাজারো মানুষের জীবন বাঁচাতে সক্ষম হয়েছে আফ্রিকান সেনা। তার এই সাহসী কাজের জন্য তাকে স্বর্ণ পদক দেয়া হয়েছে। এবং এখন সে আফ্রিকান সামরিক দলের একজন বিশেষ সদস্য হয়ে উঠেছে।

Related Articles

Back to top button