ভিডিও

মাস গেলে মাইনে পান ৪০,০০০ টাকা, এদিকে সামান্য বানান লিখতে নাজেহাল অবস্থা মাস্টারের! দেখুন ভিডিও

বর্তমান ডিজিটাল সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বিশ্বের যেকোনো প্রান্তের খবর বা ঘটনা খুব দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ে। প্রায়ই বিভিন্ন ধরনের ঘটনার ভিডিও ও ছবি ভাইরাল হয় নেট দুনিয়ায়। স্মার্টফোন বা কম্পিউটারের মাধ্যমে খুব সহজেই আমরা যে কোনো খবর জানতে পারি এক লহমায়।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওগুলি দেখে নেটিজেনরা কোনো সময় মজা পান, কোনো সময় মন ভারাক্রান্ত হয় আবার কোনো সময় অবাক হয়ে যেতে বাধ্য হন। কোনো কোনো ভিডিও তুলে ধরে সমাজের কঠিন বাস্তব নতুন করে, যা আবার নেটিজেনদের ভাবতে বাধ্য করে। সম্প্রতি এক ভাইরাল হওয়া ভিডিওর ঘটনা দেখে সেরকমই প্রশ্ন উঠেছে মানুষের মনে। সমাজ তথা আমাদের দেশ ভারতবর্ষে আদৌ কতটা উন্নতি হয়েছে সেই প্রশ্নের মুখোমুখি করাচ্ছে এই ভিডিও।

আরও পড়ুন:   ছেলেকে দিয়ে পূরণ মেয়ের শখ, কৃশিবকে বিকিনি পরিয়ে প্রকাশ্যে আনলেন অভিনেত্রী পূজা ব্যানার্জি, ভাইরাল ভিডিও

ভাইরাল হ‌ওয়া এই ভিডিওটি পাঞ্জাব রাজ্যের ঘাল্লু অঞ্চলের এক সরকারি বিদ্যালয়ের। সরকারি উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পরিদর্শন করতে আসেন সেই অঞ্চলের পরিদর্শক ইশা কালিয়া। স্বাভাবিকভাবেই স্কুলের পঠন পাঠন এবং ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনার অবস্থা খতিয়ে দেখার জন্য তিনি বিভিন্ন জনকে বিভিন্ন প্রশ্ন করছিলেন। যেমন, মানচিত্র দেখিয়ে তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের রাজ্যের নাম জিজ্ঞাসা করছিলেন, কিছুজন উত্তর দিলেও বেশিরভাগ ছাত্র-ছাত্রীই নিরুত্তর ছিল। তবে আসল ঘটনা ঘটে এরপর।

ছাত্র-ছাত্রীদের ইংরেজি বানান জিজ্ঞেস করেন পরিদর্শক ঈশা কালিয়া, যার উত্তর বেশিরভাগ জন‌ই ভুল দেয়। এরপরে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে বোর্ডে ‘গ্রামার’ (grammar) শব্দটি লিখতে বলেন পরিদর্শক, যা তিনি লিখতে পারেন না। এই সহজ শব্দের বানান প্রধান শিক্ষক ভুল লেখেন। শুধু তাই নয়, বারবার তাঁকে তিনি বানানটি ঠিক লিখেছেন কি না জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন বানানটি ঠিক লেখা হয়েছে। বানানটি ভুল হয়েছে জানানোর পরে তিনি বিভিন্ন রকম সাফাই দিতে থাকেন, অথচ তিনি রীতিমতো উচ্চশিক্ষিত, বিএসসি-র পাশাপাশি বিএড করা আছে তাঁর। বিদ্যালয়ের অন্য আরেকজন শিক্ষককে এই একই বানান লিখতে দেওয়া হলে তিনিও ভুল করেন এবং অজুহাত হিসেবে তিনি বলেন তাঁর পড়াশোনা সরকারি স্কুল থেকে হওয়ার কারণে তাঁর ইংরেজি অত্যন্ত দুর্বল। এই দুজন ছাড়াও আরো অনেকেই বানান লিখতে পারেননি। স্বাভাবিকভাবেই পরিদর্শক ঈশা কালিয়া এই ঘটনায় হতভম্ব হয়ে যান। পরে এই বিষয়ে পরিদর্শক বলেন শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ব্যাপারে কোনো রকম অভিযোগ জানানো না হলেও তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষার বিষয়টি আরও ভালো করার জন্য সেদিকে গুরুত্ব দেবেন।

আরও পড়ুন:   সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা মিলল বিরল প্রজাতির প্রানী, মুহূর্তে ভাইরাল হল ভিডিও!

এই ভিডিওটি ইউটিউবে ‘Living India News’ নামক এক চ্যানেল থেকে পোস্ট করা হয়। পোস্ট করার সাথে সাথেই ভিডিওটি অত্যন্ত দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ে। ইতিমধ্যেই ভিডিওটি ৪৯ হাজারেরও বেশি মানুষ দেখেছেন, কমেন্টে বয়ে গিয়েছে সমালোচনার ঝড়। দর্শকদের অধিকাংশের মতে, এই ভিডিও থেকে আসলে ভারতবর্ষে সরকারি বিদ্যালয়গুলির শিক্ষাব্যবস্থা কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে তা প্রমাণ হয়ে গিয়েছে। প্রায় ৪০ হাজার বেতনধারী শিক্ষক-শিক্ষিকারা নিজেরাই এইসব সামান্য বিষয় সঠিক ভাবে জানেন না। সেক্ষেত্রে ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষার বিষয় সঠিকভাবে কখনোই সম্পন্ন হওয়া সম্ভব নয় বলে মতপ্রকাশ করেছেন নেটিজেনদের একাংশ।

Related Articles

Back to top button