রেস্তোরাঁর মতো বাড়িতেও অতি সুস্বাদু চিকেন বিরিয়ানি বানাতে, জেনে রাখুন এই রেসিপি

বিরিয়ানি খেতে আমরা সকলেই ভালোবাসি। আর আজ রবিবার। রবিবার অনেকের বাড়িতেই মাংস হয়ে থাকে। তাই আলাদা করে ভাত মাংস রান্না না করে চলুন আজকে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন একেবারে অনুষ্ঠান বাড়ির মত ‘চিকেন বিরিয়ানি’।

উপকরণ :-
বিরিয়ানির চাল,
মুরগির মাংস
পেঁয়াজ কুচি,
পেঁয়াজ বাটা,
আদা বাটা,
রসুন বাটা,
টমেটো বাটা
লঙ্কা বাটা,
বড় বড় করে টুকরো করে সেদ্ধ করা আলু,
সেদ্ধ করা ডিম,
টক দই,
হলুদ গুঁড়ো,
লঙ্কাগুঁড়ো,
গরম মশলা গুঁড়ো,
বিরিয়ানি মশলা,
ঘি,
নুন, চিনি স্বাদমতো
ফোড়নের জন্য তেজপাতা, শুকনো লঙ্কা, দারচিনি, লবঙ্গ, এলাচ

প্রণালী: মুরগির মাংস আগে ভালো করে সেদ্ধ করে নিতে হবে। চাল এমন করে সেদ্ধ করতে হবে যাতে ভাত একটু গোটা গোটা থাকে। এবার একটি কড়াইতে ঘি গরম করে তাতে কুচি করে কেটে রাখা পেঁয়াজ ভেজে তুলে রাখতে হবে। তাতে আরো ঘি দিয়ে তেজপাতা, লবঙ্গ, দারুচিনি, এলাচ, শুকনো লঙ্কা ইত্যাদি ভেজে নিয়ে পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা, রসুন বাটা, টমেটো বাটা দিয়ে দিতে হবে। ভালো করে ভাজা ভাজা হয়ে গেলে নুন, মিষ্টি দিতে হবে। টক দই ফেটিয়ে দিয়ে দিতে হবে। সেদ্ধ করে রাখা মাংসের টুকরো দিয়ে দিতে হবে। সাথে মাটনের চর্বি ও দিতে হবে। ভালো করে কষাতে হবে। হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কাগুঁড়ো দিতে হবে। এরপর সিদ্ধ করা মাংসের ঝোল দিয়ে খানিক্ষন ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে। ঢাকা খুলে ভালো করে কষানো হয়ে গেলে লঙ্কা বাটা, গরম মশলা গুঁড়ো দিয়ে নামিয়ে নিতে হবে।

এবার একটি প্রেসার কুকারে ভালো করে ঘি মাখিয়ে তাতে প্রথমে ভাত দিয়ে দিতে হবে। এরপরে সেদ্ধ করা আলু, সেদ্ধ করার ডিম এবং ভেজে রাখা পিঁয়াজের বেরেস্তা, ও একটু একটু করে মাংস দিতে হবে, আবারো ভাত ছড়িয়ে দিতে হবে, তারপরে আবারো পুনরায় এই জিনিসগুলো দিয়ে যেতে হবে একদম ওপরে উঠে এলে বেশ খানিকটা ঘি, সামান্য নুন, দুধের মধ্যে গুলে রাখা বিরিয়ানি মশলা দিয়ে দিতে হবে। প্রেসার কুকারের ঢাকা আটকে বেশ খানিকক্ষণ দমে রাখতে হবে। কিছুক্ষন এমন দমে থাকার পর গরম গরম পরিবেশন করুন ‘চিকেন বিরিয়ানি’।