৬ বছরের দাম্পত্য জীবনের অবসান! স্ত্রী পিয়ার সঙ্গে বিবাহ-বিচ্ছেদ অনুপম রায়ের

56

গানের কথায় লিখেছিলেন, “শোনো অভ্যেস বলে কিছু হয় না এ পৃথিবীতে, পাল্টে ফেলাই বেঁচে থাকা।“ কিন্তু এবার বাস্তব জীবনে সত্যিসত্যিই ‘অভ্যেস’ বদলে গেল গায়ক-সুরকার-গীতিকার অনুপম রায়ের (Anupam Roy)। স্ত্রী পিয়া চক্রবর্তী (Piya Chakraborty) র সঙ্গে দীর্ঘ ছয় বছরের বিবাহিত জীবনে ইতি টানলেন অনুপম।

আজ বৃহস্পতিবার, দুপুর একটা নাগাদ নিজের ট্যুইটার (Twitter) হ্যান্ডেল থেকে একটি ট্যুইট করে বিবাহ-বিচ্ছেদের (Divorce) কথা ঘোষণা করেছেন অনুপম। পরস্পরের সাথে আলোচনা করেই বৈবাহিক সম্পর্কে ইতি টেনেছেন তাঁরা এবং ভবিষ্যতে দু’জনে পরস্পরের বন্ধু হিসেবেই থাকবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। স্বভাবতই ভক্তরা চমকে উঠেছেন এ খবরে। কারণ দু’জনের সম্পর্কে কখনোই কোনোরকম গুঞ্জন বা মনোমালিন্যের সংবাদের শিরোনামে আসেনি। তবে কি ভেতরে-ভেতরে সম্পর্কের শিকড় আলগা হতে শুরু করে দিয়েছিল?

আরও পড়ুন:   মা যশোদা সাজলেন অভিনেত্রী পূজা, ছেলের হাত ধরেই মেটালেন মনের সাধ

ট্যুইটে অনুপম জানিয়েছেন, “আমাদের একসাথে এই যাত্রাটা ছিল ভীষণ সুন্দর, প্রচুর মূল্যবান অভিজ্ঞতায় এবং আনন্দ ও খুশির স্মৃতিতে ভরা। কিছু ব্যক্তিগত পার্থক্যের জন্যে, স্বামী-স্ত্রী হিসেবে আলাদা হয়ে যাওয়াটাকেই আমরা বেছে নিচ্ছি। যদিও আমরা দু’জনে যেমন ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলাম, তেমনই থাকব।“

আরও পড়ুন:   'স্ট্রিট ফাইটার’ সায়নী ঘোষকে আসানসোলে ফেরার দাবীতে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ

দীর্ঘ প্রেমের পর অবশেষে ২০১৫ সালের ৬ ডিসেম্বর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন অনুপম-পিয়া (Anupam–Piya)। নৃতত্ত্বে (Anthropology) পিএইচডি (Phd)-র ছাত্রী ছিলেন পিয়া। অনুপমের পাশাপাশি পিয়া নিজেও একজন গায়িকা। কলেজজীবনে অনুপম ও পিয়া যথাক্রমে প্রেসিডেন্সি ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তেন।

টলিউডকে ‘আমাকে আমার মত থাকতে দাও’, ‘বাড়িয়ে দাও তোমার হাত’, ‘এখন অনেক রাত’-এর মত অজস্র গান দেওয়ার পাশাপাশি বলিউডেও ‘পিকু’ (Piku)-র মতো ছবিতে গান তৈরি করেছেন অনুপম। অনুপমের সঙ্গীতজীবনে পিয়ার যথেষ্ট প্রভাব রয়েছে। অনেকেই হয়তো জানেন না যে অনুপমের বিখ্যাত গান ‘বসন্ত এসে গেছে’ বা ‘উড়ে যাক’ এর মত হিট গানগুলির বেশ কয়েকটি লাইন অনুপম পিয়াকে উদ্দেশ্য করেই লিখেছিলেন।

আরও পড়ুন:   কাস্টিং কাউচের চক্করে পড়তে হয় অভিনেত্রী ‘প্রাচী দেশাই’কেও, ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলেন তিনি

দীর্ঘ ছয় বছরের এই যাত্রায় যেসব মানুষ তাঁদের পাশে ছিলেন, তাঁদের সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন অনুপম। সকল শুভাকাঙ্ক্ষীদের জানিয়েছেন আন্তরিক শুভেচ্ছা। সেইসঙ্গে অনুরোধ করেছেন, তাঁদের মধ্যকার সম্পর্কের এই পরিবর্তনকে সকলে যেন মর্যাদার সঙ্গে খোলা মনে গ্রহণ করেন।