কৃশ, সুপারম‍্যান দেখতে পারেন, অথচ সিরিয়ালে দুটো বৌ থাকলে হাসেন, ট্রোলের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন তৃণা

45

স্টার জলসার জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘খড়কুটো’-র টিআরপি কমে গেছে। অনুরাগীদের একাংশের ধারণা, চিত্রনাট্যে মাঝে মাঝেই আসে আজগুবি মোড়। সেই কাহিনী তৈরি হয় গুনগুনকে ঘিরেই। ফলে অনুরাগীদের ধৈর্য চলে যায় চূড়ান্ত পর্যায়ে। এবার তা নিয়ে মুখ খুললেন গুনগুন ওরফে তৃণা সাহা (Trina Saha)।

পরিবারের সদস্যদের অনুপস্থিতিতে ভাশুরের স্ত্রী মিষ্টির সন্তানকে পৃথিবীর আলো দেখতে সাহায্য করেছে গুনগুন। শিশুটির সঙ্গে তার এক অদ্ভুত টান রয়েছে। সে পরম মমতায় শিশুটিকে কাছে রাখতে চায়। কিন্তু তা সহ্য করতে পারছে না তার বড় জা মিষ্টি। ফলে শুরু হয়ে গিয়েছে দুই জায়ের অশান্তি। তা টেলিভিশনের পর্দা ভেদ করে চলে এসেছে নেটদুনিয়ায়।

নেটিজেনদের একাংশ গুনগুনের এই আচরণকে বাড়াবাড়ি হিসাবেই দেখছেন। তাঁদের মতে, শুধুমাত্র জন্মের সময় পাশে ছিল বলে মায়ের থেকে সন্তানকে আলাদা করার অধিকার গুনগুনের নেই। অনেকে বলছেন, গুনগুন শৈশব থেকে মায়ের সান্নিধ্য পায়নি। তাই মিষ্টির মেয়েকে কাছে পেয়ে নিজের আবেগে সে লাগাম টানতে পারছে না। কিন্তু গুনগুন ওরফে তৃণা সাহা বলেছেন, তিনি এই ঘটনা নিয়ে কিছু ভেবে দেখেননি। তিনি একজন অভিনেত্রী। তাঁকে পরিচালক যা বলবেন, তাই শুনতে হবে। চিত্রনাট্য অনুযায়ী তাঁকে অভিনয় করতে হয়।

এর আগেও বারবার গুনগুনকে নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। গুনগুনের অভিনয় নেটিজেনদের অনেকের কাছেই ন্যাকামি লেগেছে। গুনগুনের অবুঝপনা মনে হয়েছে জোর করে তার উপর চাপিয়ে দেওয়া। তৃণা মনে করেন, অভিনয়ের মাধ্যমে যে অভিনেত্রী দর্শকদের রাগিয়ে দিতে পারেন, তিনি যথেষ্ট ভালো অভিনেত্রী। তবে নিজেকে অত ভালো অভিনেত্রী মনে করেন না তৃণা। তবে তাঁর চরিত্র নিয়ে কথা বলা উপভোগ করছেন তিনি। তবে টিআরপি নিয়ে এখন আর ভাবেন না তৃণা। তিনি নিজের কাজ করে নিজেকে মানসিক শান্তি দিতে চান।

তাঁর মতে, সবসময়ই হাসিমুখে থাকা গুনগুনের জীবনেও সমস্যা আছে, এটা দর্শকদের বিশ্বাস করতে হবে। বাংলা ধারাবাহিকে গল্পের সঙ্গে বাস্তবের মিল থাকলে তার গ্রহণযোগ্যতা কমে যায় বলে মনে করেন তৃণা। তৃণা বলেছেন, মানুষ টাকা খরচ করে ‘সুপারম‍্যান’, ‘কৃশ’ দেখতে পারেন যেগুলো বাস্তব নয়। অথচ ধারাবাহিকে দুটো বিয়ে তাঁদের কাছে হাস্যকর হয়ে যায়। তবে আপাতত তৃণা ধারাবাহিকের নতুন মোড় নিয়ে ভাবতে চান। কে কি বলল তা নিয়ে তিনি মাথা ঘামাতে চান না।

আরও পড়ুন:   দিব্যা ভারতীর মৃত্যুর পর কেটে গেছে ২৮টা বছর, আজও রহস্য অভিনেত্রীর মৃত্যু