সাধারণ সর্দি, জ্বর আর কোরোনার মধ্যে পার্থক্য কী? বুঝবেন কীভাবে আপনি কোরোনার শিকার?

সাধারণ সর্দি, জ্বর আর কোরোনার মধ্যে পার্থক্য কী? বুঝবেন কীভাবে আপনি কোরোনার শিকার? ধীরে ধীরে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ছে নোভেল কোরোনা ভাইরাস। এখনো অবধি আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য হলেও খুব তাড়াতাড়িই সারা দেশে এই ভাইরাস মহামারীর আকার নিতে পারে বলে সতর্ক করেছে বিশেষজ্ঞরা। চীন, ইতালি সমেত ইউরোপের বাকি দেশগুলির অবস্থাও কার্যত এক। তবে এরই মধ্যে সমস্যা তৈরি হয়েছে অন্য জায়গায়।

নোভেল কোরোনা ভাইরাসের উপসর্গ গুলি সাধারণ জ্বর, সর্দি, কাশির মতো হওয়ায় এই ভাইরাসকে সহজে চিনতে পারা কঠিন হয়ে পড়ছে। আবার অনেক ক্ষেত্রে সাধারণ জ্বরকেই অনেকে কোরোনা ভাইরাস ভেবে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। তাহলে আসুন দেখে নিই কীভাবে বুঝবেন যে আপনার সাধারণ জ্বর হয়েছে নাকি আপনার শরীরে বাসা বেঁধেছে কোরোনা?

[আরও পড়ুনঃ দিল্লির পর রাজ্যেও গোমূত্র খাইয়ে সচেতনতা বার্তা এই বিজেপির নেতার]

সাধারণ জ্বর যদি আপনার হয় তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নয় ওষুধ খান, দরকার হলে প্যারাসিটামল খেয়ে নিতে পারেন। তবে ১০ দিনের মধ্যে জ্বর না কমলে আর সময় নষ্ট করবেন না, তক্ষুনি আপনার শরীরে কোরোনার অস্তিত্ব আছে কি না তা পরীক্ষা করতে হবে। সাধারণ জ্বরে শরীরের তাপমাত্রা ১০৩, ১০৪ এ উঠে গেলেও ওষুধ খেলে তাড়াতাড়ি নেমে যায় কিন্তু কোরোনার জ্বরে তাপমাত্রা সহজে নামতে চায়না।