মা লক্ষ্মীকে এইভাবে পূজো করুন, কেটে যাবে সংসারের বাধা বিপত্তি, আসবে নতুন সুখবর

বেশ কয়েকটি আচার অনুষ্ঠান পালন করলে তুষ্ট হন মা লক্ষ্মী। যে যে আচার অনুষ্ঠানের ধরন অনুসরণ করলে দেবী প্রসন্ন হবেন জেনে নেওয়া যাক-

* প্রচলিত আছে, সমস্ত দেবতা তুলসী গাছে বাস করেন। তাই বাড়িতে তুলসী গাছ লাগালে ও সেখানে প্রতিদিন প্রদীপ জ্বালালে তুষ্ট হবেন মা দেবী। বলা হয়, তুলসী গাছ মা লক্ষ্মীর আরেক রূপ।

* পুজোর দিন ছাড়াও বাড়িতে প্রতিদিন যদি মা লক্ষ্মীর পায়ের চিহ্ন আঁকা যায় তবে ভাল। প্রতিদিন না আঁকলেও মা লক্ষ্মীর পুজোর তিথির দিন ও বৃহস্পতিবার বা শুক্রবার পায়ের চিহ্ন আঁকলে দেবী তুষ্ট হন।

* প্রতিদিন স্নান করে পরিষ্কার বস্ত্র পরিধান করে লক্ষ্মী গায়ত্রী মন্ত্র ১০৮ বার জপ করলে মা লক্ষ্মী সন্তুষ্ট হন। মন্ত্রটি জপ করার সময় পদ্মবীজের মালা ব্যবহার করা ভাল।

* বাড়ির কল্যাণের জন্য ঠাকুর ঘরে কড়ি ও শঙ্খ রাখা ভাল।

* বাঁশি বিষ্ণুর অবতার শ্রীকৃষ্ণের প্রিয় এবং মা লক্ষ্মীরও প্রিয়। তাই বাঁশের বাঁশিকে কাপড়ে মুড়ে ঠাকুরের সিংহাসনে রাখলে মা লক্ষ্মী প্রসন্ন হন।

* দক্ষিণাবর্ত শঙ্খকে মা লক্ষ্মীর শঙ্খ বলা হয়। একটি পরিষ্কার কাপড়ে, রূপোর বা মাটির পাত্রের উপর রাখলে এই শঙ্খের মাধ্যমেই বাড়িতে মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদ আসে।

* প্রতিদিন মা লক্ষ্মীর মূর্তি বা পটের সামনে দু’টি ঘিয়ের প্রদীপ জ্বালিয়ে পদ্ম, নারকেল ও ক্ষীরের নৈবেদ্য দিলে তুষ্ট হন মা লক্ষ্মী।

* লক্ষ্মী দ্বাদশ স্তোত্র টানা ১২ দিন ধরে ১২ বার ভক্তি ভরে উচ্চারণ করলে ঋণের বোঝার থেকে মুক্তি ঘটে।

* এছাড়া প্রতি শুক্রবার একটি মাটির প্রদীপে নয়টি সলতে জ্বালানো ভাল।