Homeলাইফ স্টাইলবাড়ির ছাদে সহজেই করতে পারেন টমেটো চাষ , হবে চোখে পড়ার...

বাড়ির ছাদে সহজেই করতে পারেন টমেটো চাষ , হবে চোখে পড়ার মতন ফলন, রইল পদ্ধতি

মানুষের জীবনযাত্রায় খাদ্যের ভূমিকা অপরিহার্য। আর প্রতিদিনের খাবারে সবজির ভূমিকাও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। আর সেই সবজির তালিকায় অত্যন্ত প্রয়োজনীয় সবজি হল টমেটো। সেদ্ধ থেকে শুরু করে বিভিন্ন তরকারিতে দেওয়া হয়ে থাকে টমেটো। তবে, আজ আপনাদের বাজারে না গিয়েও সম্পূর্ণ বিষমুক্ত পদ্ধতিতে কীভাবে টমেটো(Tomato) চাষ করবেন বাড়িয়ে সেটাই বলবো। টমেটো চাষ করতে গেলে প্রথমেই টবের আকার সঠিক হতে হবে। সর্বনিম্ন ৫/৭ কেজি মাটি ধরে এমন টব তো লাগবেই। এর চেয়ে বড় হলেও সমস্যা নেই। চলুন জেনে নেওয়া যাক কীভাবে চাষ করবেন।

টবে টমেটো চাষ করার জন্য মাটি সঠিক ভাবে তৈরি করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই দোআশ মাটি ৫০শতাংশ, বালি ১০ শতাংশ, ছাই ১০ শতাংশ, পচা সার ৩০% এগুলি সব একসঙ্গে মিশিয়ে একটি মাটি তৈরি করে নিতে হবে। এভাবে মাটি তৈরি করে নিলে কোনো রাসায়নিক সার ব্যবহার করতে হবে না। তবে, আপনি চাইলে এই মাটির মধ্যে কিছুটা মিশ্র সার (NPK)মিশিয়ে দিতে পারেন।

২.সেচ

টবে চাষ করার ক্ষেত্রে জল সেচ পদ্ধতি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। টমেটো গাছে প্রতিদিন জল দিতে হবে অবশ্যই। কিন্তু আবার বেশি পরিমাণে জলও যাতে দেওয়া না হয় সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। টমেটো গাছে বেশি জল দিলে রোগ জীবাণু বাসা বাঁধে। তবে, বাড়িতে ধোয়া মাছ-মাংসের জল দিতে পারেন টমেটো গাছে। এটা খুবই উপকারী।

৩.সার প্রয়োগ

টবে টমেটো চাষ করতে গেলে রোপনের সময় যেমন প্রয়োজনমতো সার প্রয়োগ করা হয়। ঠিক তেমনই নিয়মিত জৈব সারও ব্যবহার করতে হয়। তবে, এক্ষেত্রে রাসায়নিক সার ততটা গুরুত্বপূর্ণ নয়।অন্যান্য সার ও ইউরিয়া গাছের গোড়ায় ৬ ইঞ্চি দূরত্বের মাটির সঙ্গে মেশাতে হবে। এছাড়াও তরল সার হিসেবে ২০০ গ্রাম সর্ষের খোল, ৫০০ গ্রাম শুকনো গোবর ২ লিটার জলে মিশিয়ে প্রথমে ২ দিন রেখে দিতে হবে। এরপর প্রয়োজনে খানিকটা NPK মিশিয়ে গাছের গোড়া থেকে ৬-৮ ইঞ্চি দূরত্বে প্রয়োগ করতে হবে। মাসে এটি দুবার ব্যবহার করলে গাছের ফলন বেশ ভালো হয়।

৪.রোগ দমন(মোজাইক ভাইরাস)

ভাইরাস প্রতিরোধী টমেটোর বীজ বাজারে পাওয়া যায় কিনতে। এই বীজ বাজার থেকে কেনা মাত্রই মোজাইক ভাইরাস এর জীবাণু ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। এরফলে আর গাছ গুলিতে কোনো রকমের ভাইরাস আক্রান্তের সম্ভাবনা থাকে না।

৫.জৈব কীটনাশক প্রয়োগ

রোগ জীবাণুর হাত থেকে টমেটো গাছকে রক্ষা করতে হলে জৈব কীটনাশক প্রয়োগ করা জরুরি। বাজারে পাওয়া নিমের তেল অথবা ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি গাদা ফুলের রস টমেটো গাছে ব্যবহার করে রোগ-জীবাণুর হাত থেকে রক্ষা করা যায়।

MOST POPULAR ARTICLES