কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মীদের জন্য সুখবর, লকডাউনের পরেও বাড়িতে বসে কাজ করাতে পারবেন

করোনাভাইরাস এর কারণে সংস্কৃতিতে আমূল পরিবর্তন এসেছে। শুধু অফিসই নয়, বাড়িও এবার কর্মক্ষেত্রে পরিণত হচ্ছে। ফলস্বরূপ, লকডাউনের পরেও ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য হতে পারে। কর্মী ও প্রশিক্ষণ অধিদফতরের মতে, যোগ্য কর্মীরা এবং কর্মকর্তাদের বছরে 15 দিন বাড়ি থেকে কাজ করার সুযোগ দেওয়া যেতে পারে।

জানা গেছে যে এই মুহূর্তে ৪৮ লাখ ৩৪ হাজার শ্রমিক দেশে কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে কাজ করছেন। মন্ত্রকের মতে, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা জরুরি। এজন্য কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের বাড়িতে থেকে কাজ করতে হবে। বিভিন্ন সরকারি মন্ত্রক এবং বিভাগ ই-অফিস এবং ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে করোনভাইরাসকে মোকাবেলায় অক্লান্ত পরিশ্রম করেছে। এটি ভারত সরকারের প্রথম অভিজ্ঞতা। তাই লকডাউনের পরেও সুরক্ষা এবং সুরক্ষার স্বার্থে বাড়ি থেকে কাজ করা দরকার এবং এর জন্য একটি ব্লু-প্রিন্ট তৈরি করা হচ্ছে। এটি অফিসের ভিড় এড়াতে পারবেন এবং কাজও হবে।

গত ২৪ ঘন্টায় ভারতে মৃতের সংখ্যা আরও বেড়েছে। 50 দিনের বেশি সময় ধরে লকডাউনে মৃতের সংখ্যা ২৫০০ ছাড়িয়ে গেছে। এখনও অবধি ৭৮ হাজার এরও বেশি লোক সংক্রামিত হয়েছে। ওয়ার্ল্ড মিটার অনুসারে, বৃহস্পতিবার সকাল অবধি মোট ৪৪ লক্ষ ২৯ হাজার ২৩৮ জন এই মারাত্মক ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দু’লক্ষ ৯৮ হাজার ১৬৫ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া, করোনার যুদ্ধে ১৬ লক্ষ ৫৮ হাজার ৯৯৫ জন জিতেছে। পশ্চিমবঙ্গে বুধবার ১১৭ টি নতুন করোনভাইরাস পাওয়া গেছে। ৯ জন মারা গেছেন।