নয়া নির্দেশিকা জারি, সপ্তাহে এক দিন অফিসে হাজিরা দিতেই হবে, নইলে কাটা যাবে বেতন

করোনার সঙ্কট মহারাষ্ট্রে শীর্ষে পৌঁছেছে। আনলক ওয়ান ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। সরকারী অফিসও খুলেছে। এবার মহারাষ্ট্র সরকার শ্রমিকদের উপস্থিতি নিয়ে কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। কর্মচারীদের সপ্তাহে একবার অফিসে রিপোর্ট করতে হবে। না হলে বেতন কেটে নেওয়া হবে।

করোনা এই পরিস্থিতিতে সরকারী অফিস খুললেন। মহারাষ্ট্র সরকার হাজার হাজার শ্রমিককে নিশ্চিত করার জন্য কঠোর নির্দেশিকা জারি করেছে। যাই হোক না কেন, কর্মীদের সপ্তাহে একবার তাদের নিজ নিজ অফিসে রিপোর্ট করতে হবে। না হলে বেতন কেটে নেওয়া হবে। কে একদিন অফিসে আসবেন তার একজন রোস্টার তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।

মুখ্যমন্ত্রী কড়া নির্দেশিকা জারি করে বলেছেন যে মেডিকেল ছুটিতে থাকা সকল কর্মীদের নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে। অন্যথায় বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বিভাগের প্রধানদের এ বিষয়ে সতর্ক করেছিলেন। যদি কোনও শ্রমিক নির্ধারিত রোস্টার অনুসারে উপস্থিতির দিন অফিস থেকে অনুপস্থিত থাকেন তবে তার পুরো সপ্তাহের বেতন কেটে নেওয়া হবে। আর যদি অফিস প্রধান এক বা দুই দিনের বেশি অনুপস্থিত থাকেন তবে এক দিনের বেতন কেটে নেওয়া হবে। গাইডলাইনগুলি আগামী ২ জুন কার্যকর হবে।

মহারাষ্ট্রে করোনার পরিস্থিতি সবচেয়ে সঙ্কটজনক। করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। বাণিজ্য নগরী এক ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আনলক ওয়ান ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। সংক্রমণ আরও ছড়িয়ে যেতে শুরু করেছে। সরকারী দফতরে প্রতিটি ১০ জন কর্মী নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে।